মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

উপজেলা প্রশাসনের পটভূমি

 
কলাপাড়া উপজেলার সংক্ষিপ্ত চিত্র


কলাপাড়াঃ উপজেলার আয়তন ৪৯২.১০২ বর্গ কিঃমিঃ। ঊত্তরে আমতলী উপজেলা, পূর্বে রাবনাবাদ চ্যানেল ও গলাচিপা উপজেলা, দক্ষিণে বঙ্গোপসাগর, পশ্চিমে আমতলী উপজেলা । উপজেলাটি নিম্নভূমি অঞ্চল এবং মৃত্তিকা লবনাক্ত।

প্রধান নদীঃ
আন্ধারমানিক, সোনাতলা,শিববাড়িয়া, আড়পাংগাশিয়া,কচুপাত্রা, ধানখালী।

উপজেলা শহরঃ
উপজেলা শহর ৩টি মৌজা নিয়ে গঠিত। আয়তন ৩.৭৮ বর্গ কিঃমিঃ জনসংখ্যা ১৯,৮৭২; পুরুষ ৫৩.৬১%, মহিলা ৪৬.৩৯%। জনসংখ্যার ঘনত্ব প্রতি বর্গ কিঃমিঃ ১০২০ জন। শিক্ষার হার ৫২-০৫%। ডাকবাংলো ২টি।

প্রশাসনঃ
১৯০৬ সালে কলাপাড়া থানা গঠিত এবং থানাকে উপজেলায় রূপান্তরিত করা হয় ১৯৮৩ সালে। এ উপজেলায় পৌরসভা ০২ টি, ইউনিয়ন ১২টি, মৌজা ৫৭টি, গ্রাম ২৩৯টি।
   
প্রাচীন নিদর্শনাদি ও প্রত্নতত্ত্বঃ
কুয়াকাটা বৌদ্ধ বিহার, খাপড়াভাঙ্গা বৌদ্ধ মঠ , মিশ্রীপাড়া বৌদ্ধবিহার , গোড়া আমখোলা পাড়া বৌদ্ধ বিহার , কলাপাড়া পুরাতন হাসপাতাল ভবন।
   
ঐতিহাসিক ঘটনাবলীঃ
আরাকানের রাখাইন সম্প্রদায়ের কিছুলোক ভাগ্যান্বেষণের জন্য এ উপজেলার খেপুপাড়া ও কুয়াকাটায় বসতি স্থাপন  করে। কথিত আছে, রাখাইনরা এখানে এসে পানীয় জলের সন্ধানে কুপ খনন করে যে স্থানে বিশুদ্ধ ও সুস্বাদু মিঠা পানির সন্ধান পায়  সেখানেই তারা বসতি স্থাপন করে। রাখাইন ভাষায় ‘ক্যানসাই’শব্দের অর্থ ভাগ্যকূল। ভাগ্যহত রাখাইনরা এখানে ভাগ্যকূলের সন্ধান পায় বলে তাদের ভাষায় এ স্থানের নামকরণ করা হয় ‘ক্যানসাই’। পরবর্তী সময়ে রাখাইনদের খনন করা কূয়ার নামানুসারে  এ স্থানের নামকরণ করা হয় কুয়াকাটা। উপজেলার নাম কলাপাড়া হলেও উপজেলা সদর খেপুপাড়া নামে পরিচিত। কথিত আছে যে, উপজেলার মধ্য দিয়ে উত্তর দক্ষিণে প্রবাহিত একটি খালের দুই পাড়ে  দু’জন প্রভাবশালী রাখাইন বাস করত; পূর্ব পাড়ে কলাউ মগ এবং পশ্চিম পাড়ে খেপু মগ। কলাউ মগের নামানুসারে পূর্ব পাড়ের বসতির নামকরণ হয় কলাপাড়া এবং খেপু মগের নামে পশ্চিম পাড়ের গ্রামের  নাম হয় খেপুপাড়া।
   
জনসংখ্যাঃ
মোট- ২,৩৭,৮৩১ জন; পুরুষ-১,২০,৫১৪ জন,মহিলা-১,১৭,৩১৭ জন,পুরুষ- ৫০.৮৯%, মহিলা- ৪৯.১১%, মুসলমান- ৮৯.৬৬%, হিন্দু- ৮.৬৮% বৌদ্ধ- ১.৫% , খ্রিস্টান- ০.১৪% অন্যান্য- ০.০২%। আদিবাসী রাখাইন সম্প্রদায় ৪৮৬ টি পরিবারে মোট ২৬২৫ জন। জনসংখ্যার ঘনত্ব প্রতি বর্গ কি:মি: ৪৮৪ জন,জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার-১.৬২%, মোট ভোটার সংখ্যা-১,৫১,৯২৪ জন।

ধমীয় প্রতিষ্ঠানঃ
মসজিদ- ৩৫০, মন্দির- ৪৫, প্যাগোডা- ৪, বৌদ্ধবিহার- ৮, গির্জা- ২, মাজার- ১। উল্লেখযোগ্য প্রতিষ্ঠান; কলাপাড়া জামে মসজিদ, কুয়াকাটা বৌদ্ধবিহার, কলাপাড়ায় পীর বশির উদ্দিনের মাজার।
    
শিক্ষার হার ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানঃ
শিক্ষার গড় হার- ৫২.০৫%; পুরুষ- ৫২.৬%; মহিলা- ৫১.৫%। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানঃ বেসরকারী কলেজ ৫টি,মহিলা কলেজ ১টি, বেসরকারী উচচ বিদ্যালয় ২৭ টি, জুনিয়র উচ্চ বিদ্যালয় ০৪টি, কারিগরি শিক্ষা ইনস্টিটিউট ৩টি, মাদ্রাসা ২৭টি, সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ১৭০টি।


সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবি  প্রতিষ্ঠানঃ
মৎসজীবি সমবায় সমিতি- ২৭টি, কেন্দ্রীয় সমবয় সমিতি- ২টি, মুক্তিযোদ্ধা সমবয় সমিতি-০২টি, ইউনিয়ন বহুমুখি সমবয় সমিতি-০৮টি, বহুমুখি সমবয় সমিতি-১১টি, যুব উন্নয়ন সমবয় সমিতি-০২টি, আশ্রায়ন/আবাসন সমবয় সমিতি-০৪টি, কৃষক সমবয় সমিতি-২৩৫টি, পুরুষ বিত্তহীন সমবয় সমিতি-৩৮টি, মহিলা বিত্তহীন সমবয় সমিতি-৩৪টি, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ি  সমবয় সমিতি-০৬টি, গণগ্রন্থাগার- ১টি, নাট্য মঞ্চ- ১টি, সিনেমা হল- ৫টি, কমিউনিটি সেন্টার- ১৪টি,  খেলার মাঠ- ২২টি, প্রেসক্লাব- ২ টি।

ভূমি নিয়ন্ত্রণঃ
মোট জমি-৪৯২১৫২০ হেক্টর,এক ফসলি জমি-১৭,৬৮৬ হেক্টর, দুই ফসলি জমি-১৬,৮০০ হেক্টর, তিন ফসলি জমি-৬,০৪৫ হেক্টর, মোট খাস জমি-১৯০১.৪৫৭৯ একর, কৃষি-১৮৭০ একর, অকৃষি-৩১.৪৫৭৯ একর, বন্দোবস্ত যোগ্য কৃষি জমি-৩১৯.৬১ একর। 

প্রধান কৃষি ফসলঃ
ধান, ডাল, তরমুজ, ফুটি, শাকসব্জি।

প্রধান ফল-ফলাদিঃ
কলা, পেপে, নারিকেল, পেয়ারা, কূল।

মৎস্য খামারঃ
মৎস্য বীজ উৎপাদন খামার; সরকারি ১টি, বেসরকারি ৪টি। বার্ষিক মৎস্য চাহিদা ৩৪১৯.২০মে:টন, উৎপাদন-৪১৮৫.০২ মে:টন।

যোগাযোগ
পাকা রাস্তা- ১৩৫.৯৮ কি.মি., আধাপাকা রাস্তা- ৯৩.২০ কি.মি., কাঁচা রাস্তা- ১২৭৪.৭৪ কি.মি.।

বিলুপ্ত বা বিলুপ্তপ্রায় সনাতন বাহনঃ
পাল্কি, এক বৈঠার নৌকা, গয়না নৌকা।
   
বিলুপ্তপ্রায় ক্ষুদ্র শিল্প ইউনিটঃ
রাখাইনদের তাত শিল্প, সমবায় ম্যাচ ফ্যাক্টরী, সমবায় অটো রাইস মিল, ডিকে পাওয়ার অয়েল মিল, সমবায় ছাপাখানা।
   
কুটির শিল্পঃ 
স্বর্ণকার- ২৫, কর্মকার- ৫০।
   
হাটবাজারঃ
হাটবাজার- ২০টি,  ; উল্লেখযোগ্য হাটবাজার  কলাপাড়া হাট, মহিপুর হাট, নোমর হাট, বানাতি বাজার,আলীপুর হাট, বাবলাতলা বাজার, চাপলী হাট।

 

মেলাঃ বৈশাখী মেলা, কুয়াকাটা রাশ পুর্ণিমা মেলা

প্রধান রপ্তানী দ্রব্যঃ 
ধান, ইলিশ মাছ।

এনজিও কার্যক্রমঃ
ব্র্যাক, কারিতাস, আশা,আভাস, মুসলিম এইড, পল্লী গন উন্নয়ন কেন্দ্র, জেজেএস, ফ্রেন্ডশীপ, ওয়েভ ফাউন্ডেসন,ঢাকা আহসানিয়া মিশন, কেয়ার, , কোডেক, সংকল্প, এস এস ডিপি।

স্বাস্থ্য কেন্দ্রঃ
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স- ১টি, পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্র- ৭টি,  প্রাইভেট ক্লিনিক- ১টি।